২ মে দিদির বিদায় নিশ্চিতে শুরু হয়েছে ক্ষীর দইয়ের প্রস্তুতি, গঙ্গারামপুরের সভায় বললেন নরেন্দ্র মোদী। লাখো মানুষের সমাগমে ভোটে জয়ে আত্মবিশ্বাসী মোদীর আক্রমণ মমতাকে

0
284

পিন্টু কুন্ডু , শীতল চক্রবর্তী বালুরঘাট, ১৭ এপ্রিল–––– ২ মে দিদির বিদায় নিশ্চিত । তার জন্য ক্ষীর দইয়ের প্রস্তুতিও শুরু হয়ে গিয়েছে এখানে। জয়ের পর এই মিষ্টতা বাংলার কোণে কোণে নিয়ে যাবে বিজেপি সরকার। দক্ষিণ দিনাজপুরে ভোট প্রচারে এসে বললেন আত্মবিশ্বাসী প্রধান মন্ত্রী । শনিবারে গোচিয়ারের সভা থেকে মোদী বলেন, গঙ্গারামপুর নামেই রয়েছে দুটি পবিত্র নাম। যা আমাদের সংস্কৃতি ও সংস্কারকে তুলে ধরে। মা গঙ্গা ও প্রভু রাম আমাদের পূজ্য। সবকা সাথ ও সবকা বিশ্বাসের প্রেরণা দুজনেই। কিন্তু গঙ্গা ও রাম নামে আপত্তি রয়েছে দিদির। গঙ্গা কিনারে ভাইবোনেদের অপমান করেন মমতাদি । একই ভাবে রাম নামে এত ঘৃণা করেন যে, রামধনুতে রংধেনু করে দিয়েছেন। ভারতের কোনও নাগরিকের রামধেনুতে কোনও সমস্যা ছিল না। ভোটব্যাঙ্কের জন্য  তিনি এই রাজনীতি করেছেন বলেও তোপ দাগেন মোদী। তোষণের রাজনীতির ফল সরূপ দক্ষিণ দিনাজপুর উন্নয়ন থেকে অনেকটাই পিছিয়ে পড়েছে। এই সমস্যা থেকে বেড়িয়ে আসতে হলে বিজেপিকে ক্ষমতায় আনতে হবে ।   

 
        মোদী জানিয়েছেন কয়েক দশক পরে নির্ভিকভাবে ভোট দিতে পেরেছেন এখানকার মানুষ। গুন্ডাগিরি ও ছাপ্পাভোটের থেকে মুক্তি পেয়েছেন। আমি বাংলার মানুষদের নমস্কার করছি। দিদি আর ভাইপোর রাজনীতি আর মাত্র কয়েকদিন।  তার পরেই তাদের আর কেউ চিনবে না । 

এদিন গঙ্গারামপুরবাসীর মন পেতে মোদী বলেন, দিদি পুরাতন শিল্পে  তালা ঝুলিয়েছে ও রাজ্যের বেকারদের ভিন রাজ্যে পালানোর উৎসাহ দিয়েছে । কারণ দিদি ভাইপোর কেরিয়ার নিয়েই বেশি ব্যাস্ত । বিজেপি এলে এই সব সমস্যার সমাধান ঘটবে । এছাড়াও দিদির কুকীর্তির প্রশ্ন তুললেই দিদি প্রধানমন্ত্রীকে গালি দেয়। দিদির লোকেরা ভিখারি বলে  বাবা সাহেব আম্বেদকার ও  যোগেন্দ্রনাথ মন্ডলকে অপমান করেছেন। একই সাথে ২’মের পর শরনার্থীদের সম্মান ও অনুপ্রবেশকারিদের যোগ্য শায়েস্তা করা হবে বলতেও শোনা গিয়েছে মোদীকে ।  তিনি বলেন, ২ মে প্রত্যেক কৃষককে ১৮ হাজার পৌছে দেওয়া হবে। একই ভাবে জেলার উন্নয়নে হিলি তুরা করিডরকে দ্রুত বাস্তবায়নের ইঙ্গিত দিয়ে বলেন অবহেলিত উত্তরবঙ্গকে দেশীয় ও আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে বিকাশের করিডর বানানো হবে। এদিন মোদীর সভা ঘিরে লক্ষাধিক মানুষের সমাগম হয় ।

গঙ্গারামপুর যাওয়ার রাস্তা আবরুদ্ধ হয়ে পড়ে দীর্ঘক্ষন । করোনা বিধি মানতে সকলকেই মাস্ক ও স্যানিটাইজার বিলি করা হয়েছে দলের তরফে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here