সাড়ম্বরে পালিত হল বালুরঘাট দিবস, ডাঙিতে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করে শহীদদের উদ্দেশ্যে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করেন জেলা পুলিশ সুপার রাহুল দে।

0
175

পিন্টু কুন্ডু,  বালুরঘাট, ১৪ সেপ্টেম্বর ——- দক্ষিণ দিনাজপুরে সাড়ম্বরে পালিত হল বালুরঘাট দিবস অনুষ্ঠান। জেলাশাসক আয়েষা রানী, পুলিশ সুপার রাহুল দে এবং চেয়ারম্যান শেখর দাশগুপ্তের উপস্থিতিতে ভিন্ন মাত্রা পায় ১৪ সেপ্টেম্বরের অনুষ্ঠান।  ইংরেজদের ইউনিয়ন জ্যাক নামিয়ে দিয়ে স্বাধীনতার পূর্বে বালুরঘাটে ৩ দিন ধরে দপদপ করে উড়েছিল ভারতের জাতীয় পতাকা, গৌরবজ্বল সেই ১৪-ই সেপ্টেম্বর দিনটিকে স্মরণ করে এদিন বালুরঘাটে উদযাপিত হল বালুরঘাট দিবস।

  ১৯৪২ সালের ভারত ছাড়ো আন্দোলনের ঢেউ আঁচড়ে পড়েছিল দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার বালুরঘাটে। ১৯৪২ সালের ১৪-ই সেপ্টেম্বর এই দিনটিতে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার বালুরঘাট ব্লকের ডাঙ্গি এলাকা থেকে বিপ্লবী সরোজ রঞ্জন চট্টোপাধ্যায়-এর নেতৃত্বে হাজার হাজার মানুষ পায়ে হেটে বালুরঘাটে তৎকালীন ইংরেজ সরকারের প্রশাসনিক ভবনের সামনে উপস্থিত হয় এবং বালুরঘাট প্রশাসনিক ভবনে ইংরেজদের ইউনিয়ন জ্যাক নামিয়ে ভারতের জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন। ১৯৪২ সালের সেই ভারত ছাড়ো আন্দোলনে বালুরঘাটের বিপ্লবীদের দাপটে কোনঠাসা ইংরেজ কর্তারা কার্যত ভয়ে পালিয়ে গিয়েছিল বালুরঘাট ছেড়ে। ভারতের স্বাধীনতা লাভের পূর্বে বালুরঘাটের স্বাধীনতা সংগ্রামী বিপ্লবীদের পরাক্রমে বালুরঘাটের মাটিতে দপদপ করে ৩ দিন ধরে উড়েছিল ভারতের জাতীয় পতাকা। যা ভারতের স্বাধীনতা আন্দোলনের ইতিহাসে লেখা এক গৌরবজ্বল অধ্যায় হিসাবে আজও পরিগণিত। ভারতের স্বাধীনতা আন্দোলনের ঐতিহাসিক ১৪-ই সেপ্টেম্বর সেই দিনটিকে স্মরণে রেখে প্রতিবছর এই দিনটি বালুরঘাট দিবস হিসাবে পালিত হয়ে আসছে শ্রদ্ধা-নিষ্ঠার সঙ্গে। অন্যান্য বছরের ন্যায় মঙ্গলবার বালুরঘাট দিবস উপলক্ষ্যে বালুরঘাট দিবস উদযাপন কমিটির ব্যবস্থাপনায় বালুরঘাটের ডাঙ্গি এলাকায় ভারত ছাড়ো আন্দোলনের শহীদ স্মারকে পুস্পার্ঘ্য অপর্ণ করে শহীদদের সেল্যুট জানান দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার পুলিশ সুপার রাহুল দে। পাশাপাশি তিনি শহীদ স্মারক স্থলে জাতীয় পতাকাও উত্তোলন করেন। এদিন এই একই অনুষ্ঠানের অঙ্গ হিসাবে বালুরঘাট দিবস উদযাপন কমিটির ব্যবস্থাপনায় বালুরঘাটের তৎকালীন প্রশাসনিক ভবন তথা বর্তমান বালুছায়া ভবন সংলগ্ন স্থলে নবপ্রজন্মের কাছে দিনটির তাৎপর্য ব্যাখ্যার মধ্য দিয়ে ভারতের জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার জেলা শাসক আয়েশা রানি এ। পাশাপাশি তিনি অস্থায়ী শহীদ বেদীতে মাল্যদানও করেন। বাজানো হয় জাতীয় সঙ্গীত-ও। 
 দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার জেলা শাসক আয়েশা রানি এ  ১৪-ই সেপ্টেম্বর বালুরঘাট দিবস উপলক্ষ্যে বালুরঘাটবাসীদের শুভেচ্ছা অভিনন্দন জ্ঞাপন করে বলেন আমরা চেষ্টা করব তাড়াতাড়ি ১৪-ই সেপ্টেম্বরের শহীদ বেদী নির্মাণ করার। তিনি বলেন ১৪-ই সেপ্টেম্বর জাতীয় পতাকা উত্তোলন করে গর্বিত বোধ করছি৷ তিনি আরও বলেন শহীদদের যথাযথ মর্যাদা দেওয়া প্রয়োজন, আমি আশা করি আগামী বছর আমরা স্থায়ী শহীদ বেদী নির্মাণ করে এই অনুষ্ঠানটি করতে পারব।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here