কাটমানি রোগে কেন্দ্রের যোজনা রাজ্যের গরীব মানুষদের কাছে পৌঁছাচ্ছে না, বালুরঘাটের আদিবাসী অধ্যুষিত মাধবপুর গ্রাম ঘুরে অভিযোগ কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রহ্লাদ সিং প্যাটেলের

0
221

পিন্টু কুন্ডু, বালুরঘাট, ২১ ফেব্রুয়ারী–––– কাটমানি রোগের জেরেই কেন্দ্রের যোজনা সাধারণ গরীব মানুষদের কাছে পৌঁছাচ্ছে না। বালুরঘাট শহর লাগোয়া আদিবাসী অধ্যুষিত মাধবপুর গ্রাম ঘুরে অভিযোগ সংস্কৃতি ও পর্যটন বিভাগের কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী প্রহ্লাদ সিং প্যাটেলের। রবিবার বালুরঘাট ব্লকের ডাঙ্গা গ্রাম পঞ্চায়েতের মাধবপুর গ্রামে সাধারণ মানুষের সাথে কথা বলে তাদের দুর্দশার কথা শোনেন মন্ত্রী । তৃণমুলের দশ বছরের শাসন কালেও এই গ্রামের কোন উন্নয়ন হয় নি তা নিয়ে চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেন মন্ত্রী । গ্রামের স্বচ্ছ ভারত প্রকল্পের কাজ দেখে রাজ্যজুড়ে ওই প্রকল্পের বিভাগীয় তদন্তেরও দাবী তুলেছেন কেন্দ্রের এই মন্ত্রী। 

রবিবার সকালে বালুরঘাট শহরে চায়ে পে চর্চা অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে সোজা শহর লাগোয়া ওই গ্রামে পৌঁছে যান মন্ত্রী প্রহ্লাদ সিং প্যাটেল। যেখানে গিয়ে গ্রামবাসীদের সাথে কথা বলবার পরেই কিছুটা অবাক হয়ে যান খোদ মন্ত্রী। গ্রামের বেশকিছু বাসিন্দা প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার ঘর পেলেও আজো তাদের পাকা ছাদ হয়নি। শুধু তাই নয়, অনেক দুঃস্থ মানুষেরাও পায়নি সেই প্রকল্পের ঘর। যাকে ঘিরে শাসক দলের নেতাদের কাটমানির অভিযোগ সামনে এনেছেন মন্ত্রী। এলাকার পানীয় জলের বেহাল অবস্থা দেখেও অবাক হয়েছেন মন্ত্রী। শুধু তাই নয়, সর্বদা পরিস্কার পরিচ্ছন্ন থাকা আদিবাসীদের বাড়ির শৌচালয় দেখে স্বচ্ছ ভারত প্রকল্পের বিভাগীয় তদন্তের দাবি তুলেছেন কেন্দ্রের এই মন্ত্রী। গ্রামের দুঃস্থ ছেলেমেয়েরা স্কলারশিপের অভাবে পড়াশুনা বন্ধ করেছেন, এমন অভিযোগও শুনেছেন গ্রামবাসীদের মুখ থেকে। এমন সব ঘটনা নিয়ে সরকারের অনীহা এবং দুর্নিতিকেই দায়ী করে সরব হয়েছেন মন্ত্রী প্রহ্লাদ সিং প্যাটেল  । 

কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জানিয়েছেন, জনগনের অধিকারের জন্য কেন্দ্রের টাকা কাট মানি হয়ে রাজ্যের শাসক দলের পকেটে ঢুকছে । আর স্কলারশিপ না পেয়ে পড়াশুনা বন্ধ হচ্ছে আদিবাসী ছেলে মেয়েদের । বিগত দশ বছরে ন্যুনতম পরিষেবাও মেলে নি গ্রামের লোকেদের। আর যার কারনে লোকসভা ভোটে যেমন গোটা উত্তরবঙ্গে সাফ হয়েছে, তেমনি বিধানসভাতেও সাফ হবে।***

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here